হাতঘড়ি

সমুদ্রে মিশে যাচ্ছে কান্নার চোখে নিনাদ
অট্টালিকার ছাঁদে সুখের চাদর শুকায় রোজ!
অথচ মাটির গন্ধ মৃত- দূর্বাঘাসে মরীচিকা রোদ
চারপাশ বাতাসহীন উঠনের চিলাকুটা
তারপরও বৃষ্টির শব্দ জোয়ারের ঢেউ;

এতো প্রকৃতিময় প্রেম যেনো কালো মেঘের ছায়া,
বজ্রপাত দেহ, কমতি নাই কোনকিছু
অতঃপর কবিতা পল্লীর মন, বিবর্তন মাঠ
সোনালি দৃষ্টি কিন্তু এসব ভাববার সময় কই-
চুরমার করেছে সময়ের হাত ঘড়ি।

০৬ আষাঢ় ১৪২৮, ২০ জুন ২১

————————————-

কবি আলমগীর সরকার লিটন

বাস্তব সময়ে সহজ সরল জীবন হোক নিত্যকাল, মৃত্যু তো সামনে ঘুমের অদূর স্বাদে মৃত্যু হয়; তবুও জীবনের গতি চিনার খানিক ভুল হয়- কিছু কবিতা চায়ণ অমরত্ব সৃষ্টি সাধন রয়! বেঁচে থাকা মানে যন্ত্রনাময় এক সুখের ঠিকানায় ক্ষয়! উত্তর দক্ষিণে চাঁদ সূর্য নাই মাটির জয়।
সকল পোস্ট : আলমগীর সরকার লিটন

১১ thoughts on “হাতঘড়ি

  1. বাহ বেশ!

    ছবিটি ঠিক মতো হয়নি। হেড লাইন লেখার উপরে ‘নতুন মিডিয়া যোগ করুন’- থেকে ছবি যোগ করেছ। এই অপশনটি লেখার মধ্যে ছবি যোগ করার জন্য। লেখার শুরুতে ছবি যোগ করতে হবে যেখানে ক্যাটাগরি আছে, তার নিচে ফিচার ছবি স্থাপন করুন-থেকে।
    আমি ঠিক করে দিচ্ছি।

    লেখাটি সু্ন্দর হয়েছে।

  2. চমৎকার কাব্যকথা! বেশ মুগ্ধ হলাম পাঠে তবে এত,যেন এভাবেই লিখতে হবে।আশা করি আমরা সবাই সবাইকে আন্তরিক সহযোগিতা করব।

  3. চমৎকার কাব্যকথা! বেশ মুগ্ধ হলাম পাঠে তবে এত,যেন এভাবেই লিখতে হবে।আশা করি আমরা সবাই সবাইকে আন্তরিক সহযোগিতা করব।

মন্তব্য করুন