সোনালি প্রান্তর

রসুন মরিচ মাখানো ভাতে
বুঝালে গোলাপ ফুটত-
কিন্তু অনুরাগি ভাবনায়–
বুঝলে কই?

কাউনের ভাত মাখা
এখন আর খাওয়া হয় না;
মল মলা গন্ধ স্বাদ বাতাসে পাই না
ফসলি আবাদ বুঝি মরে গেছে;
মাটির অঙ্গে বালুচর পরেছে।

বড় সাধ জাগে
তবুও ফসলের মাঠে
দূরন্তপনা ছুঁটিতে-
কাউনের শীষ দোলা
আনন্দ ঘন ক্ষণ বুনাতে!
অথচ আজ সোনালি প্রান্তরে
কি জানি ছুটছে
আফসোসগুলো গুমরে খেয়ে মরছে-
প্রজাপতির ডানায়

ছুটে চলা রৌদ্দ দুপুর
পৃর্ণিমা ঝাঁঝাল রাত-
আর কোন দিন হবে না
ফিরা সোনালি প্রান্তর
শঙ্খচিলে হবে রাতদুপুর ভোর।

০৭ আষাঢ় ১৪২৮, ২১ জুন ২১
——————————–

কবি আলমগীর সরকার লিটন

বাস্তব সময়ে সহজ সরল জীবন হোক নিত্যকাল, মৃত্যু তো সামনে ঘুমের অদূর স্বাদে মৃত্যু হয়; তবুও জীবনের গতি চিনার খানিক ভুল হয়- কিছু কবিতা চায়ণ অমরত্ব সৃষ্টি সাধন রয়! বেঁচে থাকা মানে যন্ত্রনাময় এক সুখের ঠিকানায় ক্ষয়! উত্তর দক্ষিণে চাঁদ সূর্য নাই মাটির জয়।
সকল পোস্ট : আলমগীর সরকার লিটন

১০ thoughts on “সোনালি প্রান্তর

মন্তব্য করুন