যে দিগন্তে সীমান্ত আমার

মুখ থুবড়ে পড়া কোনো এক বসন্তে বিষণ্ণ পাখির
পালক ছুঁয়ে ছুঁয়ে তুমি যে কবিতা লিখেছিলে;
সেই কবিতা একদিন আমার হলো!
আমি সেখানে উচ্ছ্বাস মেখে বারোমাসি বসন্ত
আবাদ করার চেষ্টা করেছি।
কারো ভুলে যাবার সীমান্তে মনে রাখার দিগন্ত ছুঁয়েছি!
ওই যে আঠারোটি গোলাপ, তেত্রিশ বসন্ত,
এগুলো আমার কাছে এখন কালোবাজারী গল্প!
জানো তো দাপুটে মেঘের তর্জন গর্জনে
বর্ষণটা বরাবরই অল্প!
একটি গোলাপের অপেক্ষায়ও প্রেম বাঁচে অনন্ত..
কখনো একটি ক্ষণ কিংবা লগ্নও
জীবনের ফ্রেমে ধরে রাখে হাজার বসন্ত।
তেমনি নিখাঁদ কিছু প্রেমপদাবলি যেচে দেন ঈশ্বর!
সে প্রেমদীপাবলিই হয়তো জনম জনম
থেকে যায় অবিনশ্বর!

কবি আঞ্জুমান আরা খান

কবি, ছড়াকার ও কথাসাহিত্যিক সম্পাদক, জলছবি বাতায়ন সাহিত্য সম্পাদক, আজ আগামী ২৪ ডটকম প্রকাশিতব্য গ্রন্থ : শ্রেষ্ঠ অনুবাদ গল্প ফেসবুক আইডি : facebook.com/anjumanara.khan.587
সকল পোস্ট : আঞ্জুমান আরা খান

৬ thoughts on “যে দিগন্তে সীমান্ত আমার

  1. জলছ‌বি‌তে প্রথম ক‌বিতা এ‌টি এবং এ‌টিই তোমার প্রথম পোস্টও। নিশ্চয় এটা লেখ‌কের অহংকা‌রের। জলছ‌বি বাতায়নও স্বপ্ন দেখ‌ছে এই মাধ‌্যম‌টি লেখক ও পাঠক‌দের আ‌গের ম‌তোই মন কাড়‌তে সক্ষম হ‌বে। ক‌বিতার কথা কী আর বলব! এক কথায় অসাধারণ!

    1. এখানে প্রথম পেস্টটি করতে পারায় নিজের ভাগ্যকে সুপ্রসন্ন মনে হচ্ছে☺️
      দোয়া করবেন আমার জন্য।শুরু থেকে শেয পর্যন্ত পাশে থাকতে চাই।

মন্তব্য করুন