গাঁয়ের খেলা

অলস দুপুর ছড়া কেটে
কাটতো সময় গাঁয়েতে
রিনিকঝিনিক বাজতো নূপুর
আলতারাঙা পায়েতে।

বাঙালিদের জীবনধারায়
খেলার সাথে ছড়াগান
বিনোদনের রং ছড়াতো
বাড়তো সাথে মনের টান।

টোপাভাতি ঝুমুর ঝুমুর
কেউ খেলে না গোল্লাছুট
নেটের গেমে যাচ্ছে ঘেমে
কিশোরবেলা হচ্ছে লুট।

ডাংগুলি আর কানামাছি
ইচিং বিচিং বুড়ির চি
জোড়-বেজোড়ের খেলাগুলো
আর খেলে না গাঁয়ের ঝি।

গাঁয়ের খেলা মায়ের খেলা
দুধমাখা ভাত কাকে খায়
চিমটি কেটে ঝগড়া হতো
খেলতে লুডো চুরির দায়।

কবি খোন্দকার শাহিদুল হক

সকল পোস্ট : খোন্দকার শাহিদুল হক

৭ thoughts on “গাঁয়ের খেলা

  1. ডাংগুলি আর কানামাছি
    ইচিং বিচিং বুড়ির চি
    জোড়-বেজোড়ের খেলাগুলো
    আর খেলে না গাঁয়ের ঝি। –

    —-গ্রামের সেই ঐতিহ্য আজ আর নাই।

    শুভেচ্ছা জানবেন।

মন্তব্য করুন