খুজি তারে আমি

এই খোকা
চুপ চুপ একদম চুপ
বঙ্গবন্ধুর নাম মুখে নিবি না!
হায়নারা ঘুরছে চর্তুরদিক।

কেন মা ওরা এমন নিষ্ঠুর কেন?
যে জাতির তরে আনলো কেড়ে
লাল সবুজের পতাকা,
সেই জাতিই করল কেমন করে এমন হত্যা-
বঙ্গবন্ধুর বংশধর?
শিশু রাসেল কী দোষ করেছিলো মা ?
ওতো রাজনীতি সমরনীতির কিছুই বুঝতো না,
তবুও রাসেল পেলো না কেনো জীবন রক্ষা?
শত আকুতিতেও পারেনি কেনো যেতে-
মায়ের কুলে?
অবশেষে নিষ্ঠুরতার সীমানায়
বুলেটের ঝাঝরা বুকের রক্তে দিয়ে গেলো
স্বাধীনতার দাম।

সেই নিষ্ঠুর পনের আগষ্টে!!
জাতির কপালে নেমে এলো তিমির আধাঁর,
হায়নারা পেলো ক্ষমতার সিংহাসন!
জেল হত্যায় স্বদেশে রাজাকারের প্রত্যাবর্তন
এমন নিষ্ঠুর স্বার্থপরতা জাতির ইতিহাসে,
পৃথিবীতে আছে কী আর একটাও?।

ভাগ্যক্রমে বেচে যাওয়া দুই কন্যা
শেখ রেহেনা-শেখ হাসিনা,
স্বদেশে ফিরতেও ছিলো নিষিদ্ধতা,
কষ্ঠের সমুদ্র পারি দিয়ে আজ
তাদের একজন দেশরত্না।

ওরা ভেবেছিলো
বঙ্গবন্ধুর বংশ নির্বংশ হলো যখন শেষ
বাংলাদেশ আবারো হবে পাকিদের আবাস
কিন্তু-
ওরা বুঝতে পারেনি,
এ দেশের পদ্মা মেঘনা যমুনায়
যত শহীদের রক্ত হয়েছিলো প্রবাহিত,
সেই রক্তের প্রতি কণিকায় লেখা ছিলো
বঙ্গবন্ধুই মানে সোনার বাংলাদেশ।

মাগো ভয়তো এখনো কাটেনি
ওৎপেতে থাকা শক্রদের হুংকার এখনো শুনি
কোথায় সেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক?
খুজিঁ আমি তারে দিবানিশি।

ছবিঃ শিল্পী রবিন

কবি মনির হোসেন মমি

সকল পোস্ট : মনির হোসেন মমি

৯ thoughts on “খুজি তারে আমি

  1. ব্যথাভরা কষ্ট বুকে কষ্ট নিয়েই বলতে হয় জারজ সন্তায়ান খন্দকার মোস্তকাএর মত কুজন এখন আছে দেশরত্ন যদি ভুল করে তবে সর্বনাশ।

    সুন্দর একটি বাস্তব লিখা উপহার দিলেন।

মন্তব্য করুন