আমি বৃষ্টি হয়ে আসব

 

তুমি নগ্ন পায়ে হেঁটে যাবে সবুজের বুক মাড়িয়ে
আমি ঘাসের ডগায় পরশ্রীকাতর জলের কণা হয়ে ছুঁয়ে দেব তোমায়!
তোমার পায়ে আমি বৃষ্টির জল হয়ে
এঁকে দেব আলপনা!
প্রিয়তমা, শত প্রহরের অভিমানেও
আমি তোমায় ছেড়ে যাব না।

রোজ সকালে ভেজাচুলে বারান্দায় এসে দাঁড়ালে
আমি রোদ্দুর হয়ে তোমার চুলে পরশ বুলিয়ে যাব
মন খারাপের বিকেলগুলোয়
আকাশের বুকে রঙধনু হয়ে ভেসে উঠব।
তুমি হাসলে হেসে উঠবে সৃষ্টিরা
তুমি কাঁদলে নিশিদিন ঝরবে মেঘেরা
তুমি পাখি হলে আমি বাতাস হয়ে ছুঁয়ে যাব
তোমার অষ্টাদশী চিবুক জুড়ে অবিরাম বয়ে যাব
প্রিয়তমা, শত সহস্র ভুলের মাঝেও
আমি তোমার হৃদয়ে ফাগুনের রঙ ছড়িয়ে দিব।

আমি জানি
তুমি বসন্তে কৃষ্ণচূড়া হতে আজও ভালোবাসো
খোপা বেঁধে বসে থাকো ঝুলবারান্দায়
তোমার আমিতেই একচিলতে নিরাশার দোলচাল
ইতিউতি খোঁজে আমায়!
আমি জানি
আজও অবাধ জোছনায় হাতটি খোঁজো আমার!
অজস্র কাব্যের ভীড়ে কল্পনার নৈরাশ্যে
আমার প্রতীক্ষায় দিন কাটে প্রিয়তমা তোমার!

হোক না বৃষ্টি অবিরাম
ঝরুক না মুঠোমুঠো জল
আমি বৃষ্টি হয়ে আসবো,
তোমার নগ্ন পা ছুঁয়ে যাব।
অভিমানের মেঘ সরে গেলে
আমি আবার রোদ্দুর হব
বাসন্তী খামে মুঠোভরে তুমি নিমন্ত্রণ পাঠিয়ো।।

কবি নীলকণ্ঠ জয়

একজন সাধারণ মানুষ। সম্পাদনাঃ অবসরে কিছুক্ষণ, কালের লণ্ঠন। সহ-সম্পাদনাঃ জলছবি বাতায়ন। নির্বাহী সম্পাদক এবং প্রশাসক(মডারেটর): জলছবি বাতায়ন। কাব্যগ্রন্থঃ দহনকালের কাব্য (২০২১), জলছবি প্রকাশন। সায়েন্স ফিকশনঃ ক্রেপাসকুলার (২০২০), জলছবি প্রকাশন। কিশোর অ্যাডভেঞ্চারঃ নাথু দ্য গ্রেট (২০১৯), জলছবি প্রকাশন।
সকল পোস্ট : নীলকণ্ঠ জয়

১২ thoughts on “আমি বৃষ্টি হয়ে আসব

  1. এতো কাব্যরসে প্রিয়তমা আর অভিমান নয়, আসবে আকর্ষনীয় চোখে হাটিহাটি পায়ে আলতো ছুয়ে, সকল বারতা বয়ে আসবে কাছে প্রাণের আকর্ষনে। চমৎকার একটি কবিতা ভাল লাগা ছুয়ে গেলো।

মন্তব্য করুন