আঁধারের কথা

নিঃসঙ্গতায় বৈরিতা নেই!
আমার আছে একলা আকাশ।
গোধূলির প্রান্ত ছুঁয়ে রাতের তরি বেয়ে বেয়ে
প্রহর গুনে চলি আমি বারোমাস।।
কোন অভিমান নেই আমার,
শুধু কষ্টেরা জমে জমে একেকটি পাহাড়ের জন্ম দেয়,
মাঝে-মধ্যে গহীনতার বুক চিরে
বেরিয়ে যায় কিছু দীর্ঘশ্বাস!
কোনো ব্যর্থতার দায় নেই আমার, নেই অবসাদ, নেই ক্লান্তি।
আসক্তি নেই ঝিঁঝিঁ পোকার ডাকে
কিংবা শিয়ালের হাঁকে!
অমানিশা আমার বড় আপন,
সেখানে খুঁজে পাই আমি আমার ঐতিহ্যকে,
সে আমার আদি নিবাস।
চাঁদের জ্যোৎস্নায় নিজেকে বড় অচেনা মনে হয়
যেন অতিথির সাথে বসবাস!
হেমন্তের রাতে নির্দ্বিধায় শিশির মাখি গায়,
কারণ আমি জানি শ্রাবণ মেঘের দেউলিয়া হবার কথা!
বুক বাঁধি ক্ষাণিক আশায়…
অবিরত বর্ষণে একদিন মুখরিত হবে রাত্রিগুলো
কোন এক শ্রাবণ ধারায়।
সেদিন হয়তো জগতের সব কালিমা আমাতে মিশে
ধুয়ে যাবে সকল নৃশংসতা, বৈরিতা।

কবি আঞ্জুমান আরা খান

কবি, ছড়াকার ও কথাসাহিত্যিক সম্পাদক, জলছবি বাতায়ন সাহিত্য সম্পাদক, আজ আগামী ২৪ ডটকম প্রকাশিতব্য গ্রন্থ : শ্রেষ্ঠ অনুবাদ গল্প ফেসবুক আইডি : facebook.com/anjumanara.khan.587
সকল পোস্ট : আঞ্জুমান আরা খান

৭ thoughts on “আঁধারের কথা

  1. ‘‘চাঁদের জ্যোৎস্নায় নিজেকে বড় অচেনা মনে হয়
    যেন অতিথির সাথে বসবাস!
    হেমন্তের রাতে নির্দ্বিধায় শিশির মাখি গায়,
    কারণ আমি জানি শ্রাবণ মেঘের দেউলিয়া হবার কথা!’’

    কথাগুলো ভালো লেগেছে আমার। অবিরত থেকো।

মন্তব্য করুন